1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. zahangiralam353@gmail.com : Channel Inani :
বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ০৩:৫৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
হ্নীলার রংগীখালীতে অতিবৃষ্টির ফলে প্লাবিত হওয়ায় ক্ষতিগ্রস্থ এলাকাবাসী মুর ঈদগড়ে পাহাড়ী ঢলের পানিতে নিন্মাঞ্চল প্লাবিত, চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন মহলের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সাঁকো দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার ঘুমধুমে বৃষ্টির পানিতে সাঁতার কাটতে গিয়ে শিশুর মৃত্যু কঠোর লকডাউনকে পুঁজি করে মহেশখালীর বড়দিয়া প্যারাবন কেটে অবৈধ চিংড়িঘের পুনরায় দখল নিল প্রভাবশালী সিন্ডিকেট! নাইক্ষ্যংছড়ি ১১ বিজিবি অভিযান চালিয়ে ৯৫৮০ পিচ বার্মিজ ইয়াবা ও গাড়িসহ আটক দুই মহেশখালীতে কঠোর লকডাউনের ৩য় দিনে ৩৮ মামলায় ৮ হাজার ৪শত টাকা জরিমানা! মহেশখালী পৌরসভায় ৪০৬ কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মহিলাদের মাঝে ৩৩লক্ষ ৬৪ হাজার টাকা বিতরণ মহেশখালীতে কঠোর লকডাউনের ২য় দিনে ৮ মামলায় ৪ হাজার টাকা জরিমানা! দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর পাহাড়ে শেখ রাসেল শিশু পার্কের শুভ উদ্বোধন করলেন-এমপি আশেক
শিরোনাম
হ্নীলার রংগীখালীতে অতিবৃষ্টির ফলে প্লাবিত হওয়ায় ক্ষতিগ্রস্থ এলাকাবাসী মুর ঈদগড়ে পাহাড়ী ঢলের পানিতে নিন্মাঞ্চল প্লাবিত, চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন মহলের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সাঁকো দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার ঘুমধুমে বৃষ্টির পানিতে সাঁতার কাটতে গিয়ে শিশুর মৃত্যু কঠোর লকডাউনকে পুঁজি করে মহেশখালীর বড়দিয়া প্যারাবন কেটে অবৈধ চিংড়িঘের পুনরায় দখল নিল প্রভাবশালী সিন্ডিকেট! নাইক্ষ্যংছড়ি ১১ বিজিবি অভিযান চালিয়ে ৯৫৮০ পিচ বার্মিজ ইয়াবা ও গাড়িসহ আটক দুই মহেশখালীতে কঠোর লকডাউনের ৩য় দিনে ৩৮ মামলায় ৮ হাজার ৪শত টাকা জরিমানা! মহেশখালী পৌরসভায় ৪০৬ কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মহিলাদের মাঝে ৩৩লক্ষ ৬৪ হাজার টাকা বিতরণ মহেশখালীতে কঠোর লকডাউনের ২য় দিনে ৮ মামলায় ৪ হাজার টাকা জরিমানা! দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর পাহাড়ে শেখ রাসেল শিশু পার্কের শুভ উদ্বোধন করলেন-এমপি আশেক

“৭১গেরিলা যোদ্ধা” ইউসুফ আল আজাদ একজন অগ্রসৈনিক ছিলেন

  • আপডেট করা হয়েছে মঙ্গলবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৩৪০ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টারঃ প্রতিটি মানুষের স্বপ্ন থাকে। কিন্তু স্বপ্নের পথে পা বাড়ালেই একের পর এক আসতে থাকে প্রতিবন্ধকতা। যে ব্যক্তি এসব প্রতিবন্ধকতা ডিঙিয়ে এগিয়ে যাবেন তিনিই হবেন সফল। আজ এমনই একজন সমাজ সেবক নিয়ে কথা বলব। যিনি অনেক বাধা ও প্রতিবন্ধকতা ডিঙিয়ে একজন সফল রাজনীতিবীদ ও (চেয়ারম্যান) হিসেবে প্রতিষ্ঠিত ছিলেন

তিনি আর কেউ নন। তিনি হলেন জামালগঞ্জ উপজেলার ইতিহাসে সফল ও জনপ্রিয় জামালগঞ্জ উপজেলার চেয়ারম্যান। তিনি হলেন ইতিহাসের সফল ও জনপ্রিয় উপজেলা চেয়ারম্যান একজন সফল চেয়ারম্যান ও জনপ্রতিধির কথা যদি বলতে চাই,জামালগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী রাজনীতির উজ্জ্বল নক্ষত্র ইউসুফ আল আজাদ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীক পেয়েছেন

ইউসুফ আল আজাদ সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা পূরণে নিরন্তর কাজ করে গেছেন। তারপরও মানুষের প্রত্যাশা থাকে। তিনি, তাঁর পরিশ্রম, সাহস, ইচ্ছাশক্তি, একাগ্রতা আর প্রতিভার সমন্বয়ে সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য, স্থানীয় সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড সঠিক ও সুচারুভাবে বাস্তবায়নের জন্য, সর্বোপরি শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশের যে স্বপ্ন রয়েছে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন।

ইউসুফ আল আজাদ যে কোন কাজে সফল হয়েছেন। সকলের সহযোগিতা পেয়ে চেয়ারম্যান হিসেবে সফলতা পাওয়ায় তিনি আজ জামালগঞ্জ উপজেলার সর্বত্র সম্মানিত হয়ে ছিলেন। ৭১র বীর মুক্তিযোদ্ধা ইউসুফ আল আজাদ তাঁর বয়স ও অভিজ্ঞতা দুটিকেই হার মানিয়েছেন। তাঁর কর্মকান্ডে মনে হয়েছিল তিনি প্রবীণ নয়। তিনি অনেক নবীন । তার অভিজ্ঞতা রয়েছে অনেক।

এসকল সফল মানুষের পেছনে আছে কিছু গল্প, তা অনেকটা রূপকথার মতো। আর সে সব গল্প থেকে মানুষ খুঁজে নেয় স্বপ্ন দেখার সম্বল, এগিয়ে যাওয়ার জন্য নতুন পথ।ইউসুফ আল আজাদ জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই উল্লেখযোগ্য উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা রেখে সাধারণ মানুষের আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছিলেন। এলাকার হতদরিদ্র মানুষের উন্নয়নে তাঁর নিরন্তর প্রয়াস সব মহলেই প্রশংসা কুঁড়িয়েছে। রাস্তা ঘাটের উন্নয়ন, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সেবায় বিশেষ অবদান, সামাজিক উন্নয়নসহ বিভিন্ন প্রকল্পের বাস্তবায়নে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়ে এলাকায় নিজের মুখ উজ্জ্বল করেছেন। তার সাথে দলের ভাবমূর্তির উন্নয়ন হয়েছে।

জামালগঞ্জ উপজেলার আলোকিত মুখ হিসেবে পরিচিত এ মানুষটি নিজের সাফল্যের কারণে বিভিন্ন সংগঠন কর্তৃক নানা ভাবে প্রশংসিতও হয়েছেন এবং পেয়েছেন অসংখ্য জাতীয় পুরস্কার। অসংখ্য মসজিদ, মাদ্রাসা, স্কুল-কলেজ ও বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠণের অন্যতম পৃষ্ঠপোষক সমাজসেবী ইউসুফ আল আজাদ ছিলেন । ব্যক্তি জীবনে তিনি অত্যন্ত নম্র, ভদ্র, সদাহাস্যোজ্জ্বল ও সাদা মনের মানুষ। তাঁর মাঝে কোন অহংকার নেই। নিরহংকারী এই মানুষটি দলমত নির্বিশেষে আজ সকলের কাছে প্রিয় ছিলেন।

গত উপজেলার নির্বাচনের সময় অনেক প্রবীণ আ’লীগ নেতাকে পেছনে ফেলে তিনি পেয়েছেন দলীয় মনোনয়ন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ আল আজাদ এর কর্মকান্ডে তুষ্ট হয়েই তাকে মনোনয়ন দিয়েছিলেন। সেই আস্থার রেখেই তিনি জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতিক নিয়ে বিজয়ী হয়ে ছিলেন , দলের জন্য এবং খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষের জন্য, কাজ করছেন নিরলস ভাবে।

কাজ করছেন নৌকার জন্য। সর্বোপরি কাজ করছেন সাধারণ মানুষের কল্যাণের জন্য। বয়সে প্রবীণ হলেও তিনি মনোবল হারাননি। এই সফল মানুষটি দলীয় নেতাকর্মী থেকে শুরু করে প্রতিটি মানুষের বিপদ আপদে ছুটে গিয়েছিলেন। এলাকায় তিনি একজন সাদা মনের উদার মানসিকতার মানুষ হিসেবে ইতিমধ্যে পরিচিত ছিলেন।উল্লেখ্য এই মহান মানুষটি গত ৯ই ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা ৫০মিনিটে সিলেট ওমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।মৃত্যুকালে এই প্রবিণ নেতার বয়স হয়েছিল ৭২বৎসর, তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে দুই মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন।ইউসুফ আল আজাদ তৃণমূলের একজন জনপ্রিয় প্রতিনিধি ছিলেন। তিনি দুইবার উপজেলা চেয়ারম্যান ও পাঁচবার ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে তিনি ৫ নং সেক্টরের মুজিব বাহিনীর একজন সাহসী গেরিলা মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
এলাকার সাধারণ মানুষের মতে, আমরা নেতা বা উপজেলা চেয়ারম্যান বুঝিনা। ইউসুফ আল আজাদ একজন ভাল মানুষ। তিনি একজন কর্মঠ ব্যক্তি ও সৎ পরায়ন ছিলেন। ইউসুফ আল আজাদের মৃত্যুতে জামালগঞ্জবাসী শোকাভিভূত।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

Designed by: Nagorik It.Com