1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. zahangiralam353@gmail.com : Channel Inani :
শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ০৮:১০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
আল্লামা ক্বারী কামাল চিরনিদ্রায় শায়িত:জানাজায় মানুষের ঢল উখিয়ায় পালংখালী- থাইংখালী খাল সংস্কার না করার ফলে জনজীবনে দুর্ভোগ মহেশখালীতে পাহাড়ধসে ২ জনের মৃত্যু,ঢলে তলিয়ে গেছে ২শতাধিক বাড়িঘর,রাস্তাঘাট ও জানমালের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ঈদগাঁও -ঈদগড় -বাইশারী সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন এক ব্যবসায়ীর আর্তনাদ সরকারের প্রতি আবেদন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী গ্রাম অঞ্চলে দিন দিন চুরির ঘটনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। হ্নীলার রংগীখালীতে অতিবৃষ্টির ফলে প্লাবিত হওয়ায় ক্ষতিগ্রস্থ এলাকাবাসী মুর ঈদগড়ে পাহাড়ী ঢলের পানিতে নিন্মাঞ্চল প্লাবিত, চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন মহলের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সাঁকো দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার ঘুমধুমে বৃষ্টির পানিতে সাঁতার কাটতে গিয়ে শিশুর মৃত্যু
শিরোনাম
আল্লামা ক্বারী কামাল চিরনিদ্রায় শায়িত:জানাজায় মানুষের ঢল উখিয়ায় পালংখালী- থাইংখালী খাল সংস্কার না করার ফলে জনজীবনে দুর্ভোগ মহেশখালীতে পাহাড়ধসে ২ জনের মৃত্যু,ঢলে তলিয়ে গেছে ২শতাধিক বাড়িঘর,রাস্তাঘাট ও জানমালের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ঈদগাঁও -ঈদগড় -বাইশারী সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন এক ব্যবসায়ীর আর্তনাদ সরকারের প্রতি আবেদন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী গ্রাম অঞ্চলে দিন দিন চুরির ঘটনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। হ্নীলার রংগীখালীতে অতিবৃষ্টির ফলে প্লাবিত হওয়ায় ক্ষতিগ্রস্থ এলাকাবাসী মুর ঈদগড়ে পাহাড়ী ঢলের পানিতে নিন্মাঞ্চল প্লাবিত, চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন মহলের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সাঁকো দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার ঘুমধুমে বৃষ্টির পানিতে সাঁতার কাটতে গিয়ে শিশুর মৃত্যু

উখিয়ায় লকডাউনেও জমজমাট গরুর বাজার

  • আপডেট করা হয়েছে রবিবার, ১১ জুলাই, ২০২১
  • ৬ বার পড়া হয়েছে

শাহেদ হোছাইন মুবিন, উখিয়া।

করোনার সংক্রমণরোধে চলমান কঠোর লকডাউনের বিধিনিষেধ মেনে জমজমাট গরুর বাজার বসেছে। ।

শনিবার (১০ জুলাই) দিনব্যাপী চলা উপজেলার অন্যতম বৃহৎ এ হাটে মানুষের কিছুটা ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। অনেকেই স্বাস্থ্যবিধি মানলেও কিছু মানুষ মানছে না কোনো প্রকার স্বাস্থ্যবিধি। ফলে করোনার সংক্রমণ আরও বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হাজার হাজারেরও বেশি গরু-ছাগল উঠেছে হাটে। এখানে গরু-ছাগল এর ক্রেতা-বিক্রেতার অবস্থান ছিল। অধিকাংশ মানুষের মুখে থাকলেও কিছু মানুষের মাক্স ছিল না ।
সিকদার বিল গ্রামের খামারি সুলতানুল আলম বলেন, ‘আমি তিনটি মাঝারি গরু ও একটি বড় গরু হাটে নিয়ে আসছি। ছোট গরুগুলো বিক্রি হয়ে গেলেও বড় গরু বিক্রি হচ্ছে না। জেলার বাইরে থেকে পাইকার না আসায় বড় গরু বিক্রি হচ্ছে না।’
ক্লাসি পাড়া গ্রামের ক্রেতা মোমিনুল হক বলেন, ‘আমাদের এ এলাকায় ছোট গরু বেশি বিক্রি হয়। দাম তুলনামূলক কম। প্রতিটি গরু বিক্রি হচ্ছে, ৩০-৪০ হাজার টাকায়।’
খামারি আহমেদ হোসেন বলেন, ‘২ লাখ টাকা ধার-দেনা করে বড় চারটি গরু লালন-পালন করে হাটে তুলছি। কেউ কেনার জন্য আগ্রহ দেখাচ্ছে না। পাইকার না আসলে গরু বিক্রি হবে না।’
লম্বাশিয়া গ্রামের খামারি রফিক হোসেন বলেন, ‘দাম ভালো পাওয়ার আশায় হাটে দু’টি মহিষ নিয়ে এসেছি। বাড়িতে প্রতিটির দাম বলেছিল ৭০ হাজার টাকা করে। হাটে আনার পর ৫৫ হাজার টাকার বেশি কেউ বলেনি। অন্য জেলা থেকে ব্যাপারী না আসায় গরুর দাম কমে গেছে।’
বিষয়টি নিয়ে উখিয়া দারোগা বাজার গরু হাটের ইজাদার আব্দুর রহিম জানান, আমরা প্রতি সাপ্তাহের মতো গরুর হাট বসিয়েছি। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাজার পরিচালনা এবং বাজারে প্রবেশ পথে হাত ধোয়ার বালতি স্থাপন করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

Designed by: Nagorik It.Com